রাজশাহীর বাঘায় ভুয়া কাজীর ছয় মাসের জেল

শাহানুর আলম বাবু, বাঘা (রাজশাহী)

রাজশাহীর বাঘায় বাল্য বিবাহ দেয়া ও নিকাহ রেজিষ্ট্রি খাতা জালিয়াতী করার অপরাধে এক ভূয়া কাজীকে ৬ মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। তার নাম হুমায়ন কবির পপল। সে বাঘা পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের ছাতারী এলাকার কায়েম উদ্দিনের ছেলে।

রোববার ( ৩ জানুয়ারী) বাঘা উপজেলা সহঃ কমিশনার (ভূমি ) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট কামাল হোসেন এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, এদিন ৫টায় বাঘার উৎসব পার্কে একটি নকল নিকাহ ও তালাক রেজিষ্টার খাতায় অপাপ্ত বয়স্ক ছেলে ও মেয়ের বাল্য বিবাহ দেবার প্রকৃয়া করেন। বিষয়টি উক্ত ওয়ার্ডের নিবন্ধন দপ্তরের সনদ প্রাপ্ত কাজী রাকিবুল হাসান রাকিব টের পেয়ে সহকর্মিদের নিয়ে সেখানে উপস্থিত হয় । তাকে দেখে দৌড়ে পালাবার চেষ্টা করেন ভুয়া কাজী। পরে ধাওয়া করে তাকে পার্কের মধ্যেই আটকে দিয়ে প্রশাসনকে খবর দেন রাকিব।

খবর পেয়ে দ্রুত সেখানে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট উপস্থিত হয়। পরে তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের সত্যতা পেয়ে এবং আসামির স্বিকারুক্তিমূলক জবানবন্দি সাপেক্ষে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ২০০৯ – ৬ (১) ধারা অনুযায়ী ৭(১) ধারা মোতাবেক অভিযোগ দায়েরপূর্বক ধৃত আসামী পপলকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

এ বিষয়ে রাজশাহী জেলা নিকাহ ও তালাক রেজিষ্ট্রার (কাজী) সমিতির সভাপতি নুরুল ইসলাম বলেন, ‘হুমায়ন আহম্মেদ পপল বহুদিন থেকে অত্যন্ত কৌশলে বাঘা উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তে ভুয়া ও বাল্য বিবাহ রেজিষ্ট্রি করেন শুনেছিলাম। কিন্তু উপযুক্ত প্রমানের অভাবে এবং বাঘা পৌরসভার ১,২,৩ ওয়ার্ডের কাজী মাহাবুবুল আলমের সহকারি পরিচয় দেয়াতে তার বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ গ্রহন করা যায়নি। অদ্য প্রমানসহ ধরা পড়ে সন্ধা ৭টায় তার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতে ৬ (ছয়) মাসের কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন ম্যাজিষ্ট্রেট। আমরা এমন ভুয়া কাজীর কর্মকান্ড বন্ধ এবং বাল্য বিবাহ রোধের জন্য প্রশাসনকে সর্বাত্বক সহায়তা করে যাচ্ছি।’

বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি ) নজরুল ইসলাম বলেন, ‘ভ্রাম্যমান আদালতে সাজাপ্রাপ্ত এক আসামী কে সোমবার সকালে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে।’

এই সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Pin on Pinterest
Pinterest

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *