নওগাঁয় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বসত বাড়িতে হামলা ভাংচুর

নওগাঁ প্রতিনিধি 

নওগাঁর মহাদেবপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের লোকজনেরা একটি অসহায় পরিবারের বসত ভিটায় হামলা চালিয়ে টিনের বাড়ী ভাংচুর, গাছ কেটে তছনছ করেছে।

শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার সরস্বতীপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

এতে বাঁধা দেয়ায় মাজেদা বেওয়া (৬০) নামে এক নারীকে মারপিটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনায় তিনজনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার দুই দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ জড়িতদের কাউকে আটক করতে পারেনি।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, জমি নিয়ে বিরোধে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন গভীর রাতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়ীতে হামলা চালায়। এসময় টিনের বেড়া ও ছাউনি ভাংচুর করে ৬০/ ৭০টি বিভিন্ন জাতের আম গাছ কেটে ফেলে এবং ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে সবকিছু ভাংচুর করে সন্ত্রাসীরা। ঘরে থাকা বৃদ্ধা মাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এতে বাঁধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা মাজেদাকে লোহার রড দিয়ে মারপিট করে। বৃদ্ধার চিৎকারে তার আতœীয় ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন প্রকার ভয় ও হুমকি প্রদান করে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

জান্নাতুনের স্বামী রঞ্জু জানান, গ্রামের শালিশে আমাদেরকে জমি বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। আমরা ৭ মাস থেকে ঘর করে বসবাস করে আসছি। হঠাৎ করে তারা ঘরে ঢুকে মারপিট করে এবং আমাদের ঘর ভাংচুর করে। সন্ত্রাসীরা আমাদের ঘরের আলমারি, চকি, রান্নাঘর, টিওবয়েল, সবকিছু ভাংচুর করে।

নওগাঁয় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বসত বাড়িতে হামলা ভাংচুর

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক এলাকাবাসী জানান, এমনভাবে হামলা করা হয়েছে যা বর্ণনাতীত। এই বাড়ীতে এখন রান্না করে খাওয়ার ব্যবস্থা নেই। থাকার জায়গা নেই। আকাশের নিচে বৃষ্টিতে ভিজে দিন রাত পার করছেন।

মামলার বাদি জান্নাতুন জানান, সন্ত্রাসীরা তান্ডব চালিয়ে সবকিছু ভাংচুর করে পালিয়ে যায়। বাড়ী ভাংচুর করাই আমরা দুই দিন থেকে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছি। এ বিষয়ে তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ১০/১৫ জনকে আসামী করে থানায় মামলা করলেও এখন পর্যন্ত পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

মহাদেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জুয়েল জানান, ঘটনায় মামলা দায়ের করা করা হয়েছে। পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আমরা আসামী আটকের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on Whatsapp
Whatsapp
Pin on Pinterest
Pinterest

Leave a Reply

Your email address will not be published.