রাজশাহীকে নিরাপদ বাসযোগ্য মহানগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে: আরডিএ চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজশাহীকে নিরাপদ বাসযোগ্য মহানগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে বলে নতুন উৎসাহ ও উদ্দীপনা ব্যক্ত করে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (আরডিএ) নতুন চেয়ারম্যান অতিরিক্ত সচিব আনওয়ার হোসেন। এছাড়াও ভূমিকম্প, অগ্নিনির্বাপণ, বন্যা ও খরা মূল এ চারটি প্রাকৃতিক দুর্যোগের বিষয় গুরুত্ব দিয়ে বাস্তবতার আলোকে মাস্টারপ্ল্যান সাজানো হচ্ছে।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে আরডিএ’র নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদানের সময় আনওয়ার হোসেন এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, আগামী ২০ বছর পর রাজশাহী মহানগরী কেমন হবে তার মাস্টারপ্ল্যান সংস্কার করা হচ্ছে বড়পরিসরে। আগামী বছরের জুন মাস নাগাদ রাজশাহীর মাস্টারপ্ল্যান সংশোধনের শেষ হবে। তা হলেই রাজশাহী ক্লিন অ্যান্ড গ্রিন সিটি মহানগরী হিসেবে গড়ে উঠবে।

রোববার আনওয়ার হোসেন আরডিএর নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদান করেন। এর আগে তিনি রাজশাহী অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। আনওয়ার হোসেনের জন্ম চাঁপাইনবাবগঞ্জে।

আরডিএর নতুন চেয়ারম্যান বলেন, রাজশাহীকে পরিকল্পিত বাসযোগ্য মহানগরী হিসেবে গড়ে তোলা আরডিএর মূল ম্যান্ডেট। এ জন্য নতুন নতুন আবাসিক এলাকা গড়ে তোলা হবে। মধ্য ও নিম্নবিত্ত মানুষের জন্য আবাসনের ব্যবস্থা করা হবে। আর বাসযোগ্য নগরীর পাশাপাশি নগরীতে পর্যাপ্ত বিনোদনেরও ব্যবস্থা করা হবে। এ জন্য ইতোমধ্যে পার্ক তৈরির পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দর্শন শাস্ত্রে স্নাতকোত্তর করা বিসিএস দশম ব্যাচের কর্মকর্তা অতিরিক্ত সচিব আনওয়ার হোসেন বলেন, পরিকল্পিত রাস্তাঘাট তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে আরডিএর। আর এ জন্য রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। আমরা প্রধানমন্ত্রীর সেই নির্দেশনার আলোকে কাজ করতে চাই। আরডিএ হবে জনগণের সেবাকেন্দ্র।

আমরা সর্বোচ্চ আন্তরিকতায় এটিকে জনগণের সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে চাই। এ প্রতিষ্ঠানের কোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারী দুর্নীতি করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে মন্তব্য করেন নতুন চেয়ারম্যান।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Pin on Pinterest
Pinterest

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *