রাবি ১ম বর্ষ শিক্ষার্থীদের সাথে ইউসিসি কোচিং এর প্রতারণা

রাবি প্রতিনিধি: দেশের স্বনামধন্য ইউনিভার্সিটি কোচিং সেন্টার (ইউসিসি) এর বিরুদ্ধে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীদের ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহারের মাধ্যমে প্রতারণার অভিযোগ করেছে রাবি শিক্ষার্থীরা। সংবর্ধার নামে ব্যবসায়িক উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য ইউসিসি কোচিং নাম ভাঙ্গিয়ে প্রতারণা করেছে বলে দাবী জানান রাবি ১ম বর্ষের বিভিন্ন বিভাগে শিক্ষার্থীরা।

ইউসিসি কোচিং রাজশাহী শাখার বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়াতে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ তুলে ধরে বিভিন্ন বিভাগে চান্স পাওয়া ১ম বর্ষের রাবি শিক্ষার্থীরা।

তারা জানান, বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি কোচিং ইউসিসি এর শিক্ষার্থী না হওয়া সত্তেও চলতি বছরের প্রসপেক্টাসে তাদের নাম, ছবি এবং বিভাগের নাম ব্যবহার করেছে। অভিযোগকারীরা সবাই ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী।

সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা বলেন, রাবি বিভিন্ন বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দেওয়ার কথা বলে তাদের ব্যক্তিগত তথ্য, নাম, বিভাগ, মোবাইল নাম্বার, ছবি, এসএসসি ও এইচএসসির রোল নাম্বার সহ ফরম পূরণ করিয়ে আমাদের তথ্য সংগ্রহ করে নেয় ইউসিসি কোচিং সেন্টার। কিন্তু, আমাদের ফরম দেওয়ার সময় বলা হয়েছিলো আমাদের দেওয়া তথ্য যাচাই বাছাই করে তারপরই সংবর্ধনার জন্য ডাকা হবে। আমাদের তথ্য ব্যবহার করে তারা তাদের ব্যবসায়িক কাজে লাগাবে এমন কথা ঘুনাক্ষরেও বলা হয়নি বা আমাদের জানানো হয়নি।

এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরিক্ষার্থীদের আকৃষ্ট করতে আমাদের তথ্য ২০১৯ সালে প্রকাশিত কোচিংটির প্রসপেক্টাসে ব্যবহার করা হয়। এমনকি, নিজেদের শিক্ষার্থী বলে প্রচারণা চালাই তারা। অথচ, আমরা কখনও ইউসিসির কোন শাখায় কোচিং করেনি বা তাদের শিক্ষার্থী ছিলাম না।

 

রাবি ১ম বর্ষ শিক্ষার্থীদের সাথে ইউসিসি কোচিং এর প্রতারণা
রাবি ১ম বর্ষ শিক্ষার্থীদের সাথে ইউসিসি কোচিং এর প্রতারণা

তারা আরোও জানান, ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহের পর তা অনুমতি ব্যতিত ব্যবসায়িক স্বার্থে কাজে লাগানো একটি গুরুত্ব অপরাধ এবং এটি রীতি মতো প্রতারণা। সুতরাং আমরা ইউসিসির এমন প্রতারণা ও মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানাই এবং এহেন প্রতারণা ও মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে আইনগত শাস্তির দাবী জানাই। জানা যায়, প্রতারণার শিকার অধিকাংশ শিক্ষার্থীই আাইন বিভাগের।

সংবাদ সম্মেলনে আইন বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী সানজিদা ঢালী বলেন, ইউসিসি তাদের বানিজ্যিক স্বার্থ হাসিলের জন্য এমনটা করেছে। তাদের এমন কর্মকান্ডের তীব্র প্রতিবাদ ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি এবং শিক্ষার্থীদের এই বিষয়ে সচেতন হওয়ার আহবান জানাচ্ছি।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, আইন বিভাগের শিক্ষার্থী লামিয়া তাসনিম তিথলি, সানজিদা ঢালী, মারুফ মোর্শেদ, তাবাসসুম তন্বী, আছিয়া খাতুন, হুমায়ুন কবীর, সাজেদুল হক, খালিদ সাইফুল্লাহ, আলপনা খাতুন, জাকারিয়া হোসেন সোহাগ, বায়োকেমিস্ট্রি বিভাগের জিন্নাত অরা মনি প্রমুখ।

অভিযোগের বিষয়ে ইউসিসি কোচিং সেন্টার রাজশাহী শাখার ব্যবস্থাপক দেলোয়ার হোসেন বলেন, কতজন ছাত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়েছে তাদের তথ্য সংগ্রহের জন্য আমরা ফরম দিয়েছিলাম। সেই সাথে যারা ইউসিসিতে কোচিং করেছে তাদের সংবর্ধনা দেয়ার জন্য। আর যারা এসব অভিযোগ তুলেছে তারা হয়ত না বুঝে তথ্য দিয়েছিলো, যার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা প্রসপেক্টাসে ছবি ব্যবহার করেছি।

এই সংবাদটি শেয়ার করুন
Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Pin on Pinterest
Pinterest

Leave a Reply

Your email address will not be published.